দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ | নাম ও দাম | কার্যকরী ঘরোয়া চিকিৎসা

দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ | নাম ও দাম | কার্যকরী ঘরোয়া চিকিৎসা মূলত দাউদ রোগ টি অত্যন্ত স্পর্শকাতর তাই দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ বর্তমান সময়ে পাওয়া সহজ। 


যাইহোক, দাউদের রোগ থেকে পুরোপুরি সেরে উঠতে, এই দাউদের ক্রিম বা ওষুধটি 4 থেকে 5 মাস ধৈর্য সহকারে ব্যবহার করতে হবে। তাই দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ এবং দাদ চুলকানি দূর করার ক্রিম এর আলোকে বিস্তারিত আমি আপনাদের এই ব্লগ পোস্টটি সহজ ও সঠিক ভাবে প্রস্তুত করেছি।




দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ | নাম ও দাম | কার্যকরী ঘরোয়া চিকিৎসা
দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ | নাম ও দাম | কার্যকরী ঘরোয়া চিকিৎসা

দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ


যেমন দাউদ রোগটিও আছে ঠিক তেমনি ডাক্তার বিশেজ্ঞরা উন্নত মানের ভালো ঔষধ প্রস্তুত করেছেন ও দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ গুলো বাজারে পাওয়া যায়। 

ফানজিডাল ক্রিম কেন ব্যবহার করা হয়? মূলত দাউদ সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে এই ফানজিডাল ঔষুধটি ব্যবহার করা হয়। 

আপনার পছন্দের বা দাম ভিত্তিতে যে কোন একটি দাউদের ক্রিম ধৈর্য সহকারে ব্যবহার করুন ইনশা-আল্লাহ দাউদ নিরাময় হবে। তাদের মধ্যেই অন্যতম দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ গুলো হলো:

1. ক্লোট্রিমেজোল ক্রিম (Clotrimazole cream) ২৪ ঘন্টার জন্য দিনে ২ থেকে ৩ বার ব্যবহার করুন ।

2. মাইকোনাজোল ক্রিম (miconazole cream) | এছাড়াও অন্যান্য নামে পরিচিত এবং জনপ্রিয় হলো ফানজিডাল (Fungidal). এই ক্রিম রাতে ব্যবহার করতে হবে ।

3. ফাঙ্গিট্যাক ক্রিম (Fungitac cream) ২ gm/১০০gm এর মূল্য ৳১৮০.০০ টাকা Product বিস্তারিত জানতে Product Details

4. লুলিজল ক্রিম (Lulizol Cream) এর মূল্য ৳১৬৩.৫৫ টাকা Product বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন Product Details

5. ইবারকোনাজল ক্রিম (eberconazole cream)

6. ক্লোট্রিমেজোল ক্রিম (Clotrimazole cream)



দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ বা ট্যাবলেট

1. ফ্লুকোনাজোল 50 মিলিগ্রাম (Fluconazole 50 mg) | বাজারে বা ডাক্তারের কাছে অন্যান্য নামে পরিচিত ফ্লুগাল (Flugal) | প্রতিদিন ১টি করে খাবেন। ১৫ দিন থেকে ১ মাস 

2. Anti Histamine নামক (এলাট্রল Alatrol ১০ mg) | দাউদ হলে শরীর প্রচন্ড চুলকানি করে সেই জন্য অর্থাৎ এলার্জির ঔষুধ খেতে হবে প্রতিদিন ১টি করে খাবেন।


3. ইট্রাকন ট্যাবলেট (Itracon Tablets) একটির মূল্য ৳ 17.00 টাকা এবং 24 pack ৳ 408 টাকা | Product Details

See also  স্কিন এলার্জি ঔষধের নাম | স্কিন এলার্জি থেকে মুক্তির উপায়

4. রাইনিল ট্যাবলেট (Rinil Tablets) একটির মূল্য ৳ 3.00 টাকা | Product Details



5. ফ্লুগাল ট্যাবলেট (Flugal Tablets) মূল্য ৳ 199.350 টাকা | Product Details

এছাড়াও উন্নত মানের দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধের নাম ও দাম

1. পেভিসোন ক্রিম (Pevisone cream) মূল্য ৳ 64.68 টাকা | বিস্তারিত এই ঔষুধ সম্পর্কে জানতে Product Details

2. মাইকোনাজল ক্রিম (Miconazole cream) মূল্য 15 gm tube ৳ 58.00 টাকা

3. আফুন ক্রিম (Afun Cream 1%) মূল্য ৳ 35.00 টাকা | বিস্তারিত এই ঔষুধ সম্পর্কে জানতে Product Details

4. এক্সফিন ক্রিম (Xfin Cream 1%) মূল্য ৳72.00 টাকা | বিস্তারিত এই ঔষুধ সম্পর্কে জানতে Product Details

5. টারবিনাফিন ক্রিম (Terbinafine Cream) 5gm tube মূল্য ৳35.00 টাকা | বিস্তারিত এই ঔষুধ সম্পর্কে জানতে Product Details second Product Details 




দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ | দাদের এন্টিফাঙ্গাল ট্যাবলেটের নাম


1. Fluconazole – মূল্য ৳187.00 টাকা | বিস্তারিত এই ঔষুধ সম্পর্কে জানতে Product Details

2. Cosflu – মূল্য ৳ 7.44 টাকা | বিস্তারিত এই ঔষুধ সম্পর্কে জানতে Product Details 



3. Farlan – মূল্য ৳ ৳45.00 টাকা | বিস্তারিত এই ঔষুধ সম্পর্কে জানতে Product Details  


দাউদের লক্ষণ গুলো কি কি


দাউদের সাথে সম্পর্কিত আছে খোস-পাঁচড়া জড়িত একজিমা ভিন্নতা বুঝতে পারেন তাই লক্ষণ গুলো এবং কোথায় কোথায় দাদ হয় তা নিয়ে আলোচনা করবো।


দাউদ কত প্রকার ও কি কি

দাদ অঞ্চলভেদে দাদকে ৪ ভাগে ভাগ করা হয় :


1. টিনিয়া ক্যাপিটিস দাদ: এই ছত্রাকজনিত আক্রমণ মাথার ত্বকে হয়। বিভিন্ন ক্ষত্রে এই ছত্রাকজনিত দাদ রোগটি ভ্রুতে ও হতে পারে। ,

See also  উন্নত মানের এলার্জি ঔষধ এর নাম ও দাম সহ | এলার্জি এন্টিবায়োটিক

2. টিনিয়া কর্পোরিস দাদ: এই ছত্রাকজনিত আক্রমণ দাদ রোগের চিহ্নটি দেহে হয়

3. টিনিয়া ক্রুরিস দাদ: এই ছত্রাকজনিত আক্রমণ কুঁচকি, ঊরুর ভেতরের ত্বক এবং নিতম্বে হয়।

4. টিনিয়া আঙ্গুইআম দাদ: এই ছত্রাকজনিত আক্রমণটি বিশেষ করে মুখে হয় ।


লক্ষণগুলো দেখে কিভাবে বুঝবেন যে এটা একটি দাউদ তা হচ্ছে দাউদ হলে সেই জায়গাটা ক্ষত হবে। ক্ষতের চারদিকে গুটি গুটি হবে। ক্ষতস্থানের চারপাশে ফোস্কা পড়বে । আর ক্ষতের নির্দিষ্ট একটি সীমা থাকবে । এবং যখন দাওয়াত হবে তখন চিহ্ন লালচে রঙের দেখা যাবে। এরপর সেই দাদ এর জায়গাটি চুলকানির মত জ্বালা পোড়া ও চুলকাতে পারে । 


তাই দাউদের প্রচন্ড চুলকানি থেকে বাঁচতে দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ টি Anti Histamine নামক (এলাট্রল Alatrol ১০ mg) । দাউদের আরেকটু উপসর্গ হলো দাদ মুখে হলে নখগুলো কালো হয়ে যাবে ।


আরো পড়ুন: 




দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ কেনার সতর্কতা

ব্লগ পোস্টে যে ওষুধগুলোর নাম উল্লেখ করেছি সেগুলো খুবই ভালো মানের ওষুধ, তবে কখনোই বাজারের ছোট বা বড় ওষুধের দোকানে গিয়ে নিজে ওষুধ না কেনাই উচিত। কারণ, দাউদের বিভিন্ন প্রকার ও পার্থক্য রয়েছে, তাই আপনার নিকটস্থ হাসপাতালে গিয়ে ডাক্তার চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে দাউদের রোগ নিরাময়ের চেষ্টা করুন। আশা করি আপনার দাউদ রোগ নির্মূল হবে।


দাউদ আক্রমণকারীর সতর্কতা টিপস | দাউদ রোগের সৃষ্টি 


একটা পরিবারে যেকোনো ব্যক্তির দাউদে আক্রমণ হলে নির্দিষ্ট করে একটা রুমে বসবাস করতে হবে। কেননা এই ছত্রাকজনিত রোগটি ছোঁয়াচে তাই ব্যবহৃত বালিশ থেকে ও ছত্রাকজনিত রোগটি অন্যদের কাছে ছড়াতে পারে। এছাড়া গরমের সময় শরীরের যে জায়গাটা ঘেমে যাবে তৎক্ষণাৎ পরিষ্কার করে নিতে হবে। এই ঘাম টি দীর্ঘ মেয়াদি শরীরে থাকলে ব্যাকটেরিয়া ও খারাপ অণুজীব বাসা বাঁধতে পারে। একটা সময় গিয়ে এই ব্যাকটেরিয়া গুলো দাউদ বা দাদ রূপে সৃষ্টি হয় ।

দাউদের স্থায়ী চিকিৎসা | দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ

দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য প্রদান করেছি। তাই এখন দাউদের স্থায়ী চিকিৎসা নিয়ে আলোচনা করবো। এই দাউদের স্থায়ী চিকিৎসা বা ঘরোয়া চিকিৎসাটি ১০০% কাজ করবে তাই এই অংশটি আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ হবে। দাউদ ছত্রাক জনিত আক্রমণ থেকে বাঁচার বা সুস্থ হওয়ার জন্য ঘরোয়া চিকিৎসাটি হলো :

নিম পাতা:নিমপাতা অত্যন্ত কার্যকরী একটি প্রাকৃতিক উপাদান। ছত্রাকজনিত দাউদের আক্রমণ থেকে নিজেকে রক্ষা করতে নিম পাতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তাই সাবধানতা অবলম্বন করে নিমপাতা গুলো গরম পানিতে ভেজাতে হবে। 

See also  জিংক বি ট্যাবলেট এর উপকারিতা | দাম কত, কাজ কি, খেলে কি হয় ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

তারপর কুসুম গরম পারি দিয়ে নিয়মিত গোসল করলে যাবতীয় ব্যাকটেরিয়া ও খারাপ অণুজীব নষ্ট হয়। তাই নিয়মিত এই নিম পাতার দাউদের স্থায়ী চিকিৎসা বা ঘরোয়া চিকিৎসাটি ব্যবহার করলে শরীরে দাউদ ও অনন্যা চুলকারী জনিত রোগ থেকে বাঁচা সম্ভব।


তুলসী পাতা: গ্রাম বাংলার মানুষ তুলসী পাতার সাথে খুব ভালো পরিচিত। এটি মূলত তারা কাশি থেকে রক্ষা পেতে তুলসী পাতার রস খেয়ে থাকে। এছাড়া ও এই তুলসী পাতায় রয়েছে অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টি ফাঙ্গাল উপাদান। 

তাই তুলসীর পাতা পরিষ্কার স্থানে বেটে নিয়ে সেই রস দাউদ আক্রমণ স্থানে ব্যবহার করতে পারেন এতে করে অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টি ফাঙ্গাল উপাদান দাউদ এর সংক্রমণ বন্ধ করতে সাহায্য করবে ও চুলকানি নিরাময় করে।


কাঁচা হলুদ: কাঁচা হলুদ একটি প্রাকৃতিক অ্যান্টিসেপটিক উপাদান। সর্বপ্রথম পরিমাণ মতো কাঁচা হলুদ পানি দিয়ে ভালোভাবে পরিষ্কার করে সে কাঁচা হলুদ গুলো থেতলো বা বেটে নিয়ে ছত্রাক জনিত দাউদের চিহ্নে লাগাতে পারেন। 

তারপর ১০ মিনিট থেকে ১৫ মিনিট পর ভালোভাবে পরিষ্কার করবেন। এতে করে খারাপ ব্যাকটেরিয়া ও অনুভবগুলো ধ্বংস হবে তার ফলে দাউদ আক্রান্ত জায়গাটি ধীরে ধীরে ভালো হতে শুরু করবে


রসুন: রসুন একটি অত্যন্ত কার্যকরী প্রাকৃতিক ভেষজ। ঘরোয়া প্রতিকার হিসাবে রসুন আপনাকে আপনার জরুরি সঙ্গী হিসাবে দাউদ নির্মূল করতে সাহায্য করবে যদি দাউদ প্রাথমিক পর্যায়ে থাকে। তাই কয়েক কোয়া রসুন সুন্দর করে বেটে রস নির্দিষ্ট পাত্রে জমা করে সেই রসুনের রস,দাউদের ক্ষত স্থানে ব্যবহার করতে পারবেন। 

তবে এটি গুরুত্বপূর্ণ যে আপনার দাউদ প্রাথমিক পর্যায়টি অতিক্রম করেছে, অর্থাৎ, দাউদের সংক্রমণ যদি দীর্ঘকাল স্থায়ী হয় তবে আপনি নিকটস্থ ডাক্তারের কাছে চিকিৎসা নিতে পারেন।


আমার শেষ কথা: দাউদ থেকে পরিত্রাণ পেতে দাউদ ক্রিম মলম বা ওষুধ সঠিকভাবে এবং ধৈর্য ধরে সেবন করুন। আশা করি দাউদের সংক্রমণ রোধ হবে ইনশা-আল্লাহ। আমার ব্লগ পোস্টের তথ্যপূর্ণ তথ্য আপনার কিছু হলে ও কাজে এসেছে। এবং এতে আপনি উপকৃত হয়েছেন।



Content Tag: দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ | নাম ও দাম | কার্যকরী ঘরোয়া চিকিৎসা, দাউদের সবচেয়ে ভালো মলম, দাউদের স্থায়ী চিকিৎসা, দাউদ কিভাবে ভালো হয়, দাদ চুলকানি দূর করার ক্রিম, দাউদ কেন হয়, দাউদের এন্টিবায়োটিক, দাউদের সাবানের নাম, dad molom, Daud is the best medicine